সাক্ষাৎকার: অধ্যাপক তপন কুমার বন্যার উন্নতি হলে ঈদের আগেও শুরু হতে পারে স্থগিত এসএসসি পরীক্ষা


shakil প্রকাশের সময় : জুন ১৯, ২০২২, ৪:৫৪ পূর্বাহ্ন / ২১
সাক্ষাৎকার: অধ্যাপক তপন কুমার বন্যার উন্নতি হলে ঈদের আগেও শুরু হতে পারে স্থগিত এসএসসি পরীক্ষা

আজ রোববার থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। সিলেটসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা স্থগিত করা হয়েছে। এ কারণে ২০ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে। এখন তাদের একটাই প্রশ্ন, কবে আবার শুরু হবে এ পরীক্ষা?
অন্যদিকে, এ পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় এই বছরের এইচএসসি পরীক্ষাও পিছিয়ে যাবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এসব প্রশ্ন নিয়ে প্রথম আলোর সঙ্গে কথা বলেছেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের সংগঠন আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন প্রথম আলোর বিশেষ প্রতিবেদক মোশতাক আহমেদ।
তপন কুমার সরকার: বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই আবারও আমরা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি প্রকাশ করব। সে ক্ষেত্রে কি এসব পরীক্ষা আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহার পরে শুরু হতে পারে?
তপন কুমার সরকার: যদি দেখা যায়, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়ে গেছে, তাহলে ঈদের আগেও শুরু করতে পারি। বিষয়টি নির্ভর করছে পরিস্থিতির ওপর।
আগামী আগস্টে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা রয়েছে। কিন্তু এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ার কারণে কি এ বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে যেতে পারে?
তপন কুমার সরকার: পেছাতেও পারে। কারণ, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মধ্যে মোটামুটি দুই মাসের একটি বিরতির প্রয়োজন হয়। না হলে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। সে ক্ষেত্রে এইচএসসি পরীক্ষা কিছু সময় পিছিয়ে যেতে পারে।
প্রথম আলো: আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা কবে হবে, সে বিষয়ে কি কোনো পথরেখা করা গেছে?
তপন কুমার সরকার: ২০২৩ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা ওই বছরের এপ্রিল ও জুনে হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এর মধ্যে এসএসসি পরীক্ষা এপ্রিলে এবং এইচএসসি পরীক্ষা জুনে হতে পারে।