ভোট চাইতে নয়, কর্মীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ: আবুল কালাম আজাদ


hadayet প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৬, ২০২৩, ৩:০৭ পূর্বাহ্ন / ১৫
ভোট চাইতে নয়, কর্মীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ: আবুল কালাম আজাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ প্রতিদিনই বিভিন্ন দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাউকে না কাউকে শোকজ করছে নির্বাচন কমিশন। এরইমধ্যে হেভিওয়েট কয়েকজন প্রার্থীকে শোকজ করেছে কমিশন। এদের মধ্যে বেশিরভাগই হচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী।

সবশেষ শোকজ করা হয়েছে জামালপুর-৫ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী সাবেক মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদকে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে বর্ধিত সভা করেছেন। কিন্তু অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আবুল কালাম আজাদ।

বিষয়টিকে মোটেই আচরণবিধির লঙ্ঘন মানতে নারাজ আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে অনেক রকম প্রস্তুতি নিতে হয়। বিশেষ করে দলীয় নেতাকর্মীদের নানারকম প্রশিক্ষণ দিতে হয়। সচেতন করে তুলতে হয়। যাতে তারা কেউ আচরণবিধি লঙ্ঘন না করে।’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বর্ধিত সভা করা হচ্ছে এবং ভোট চাওয়ার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। কর্মীরা কীভাবে ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট চাইবে, কী কী বলে ভোট চাইবে, কীভাবে তারা ভোটারদেরকে ভোট প্রদানে উদ্বুদ্ধ করবে- মূলত এসব বিষয়েই নেতাকর্মীদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এটা কোনো নির্বাচনী সভা বা সমাবেশ নয়।’

নির্বাচনি আচরণ বিধি লঙ্ঘন জনিত কারণে গত ৪ নভেম্বর ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি পাঠায় জামালপুর নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটির কার্যালয়। জামালপুর-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিমের অভিযোগের প্রেক্ষিতে এই চিঠি দেওয়া হয়।